বিমান বিধ্বস্তে ১০০ মানুষের কারো বাঁচার আশা নেই: করাচি মেয়র


বিমান বিধ্বস্ত

পাকিস্তানের করাচি শহরের জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ভেঙে পড়া বিমানটিতে থাকা প্রায় ১০০ মানুষের কারো বাঁচার আশা নেই বলে জানিয়েছেন সেখানকার মেয়র ওয়াসিম আখতার।

শুক্রবার সকালে ৯১ জন যাত্রীকে নিয়ে প্লেনটি লাহোর থেকে করাচি যাচ্ছিল। কর্মীসহ ফ্লাইটটিতে মোট ৯৯ জন মানুষ ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর করাচির মেয়র ওয়াসিম আখতার দুর্ঘটনাস্থল থেকে রয়টার্সকে ফোনে বলেন, ‘এই মুহূর্তে মনে হচ্ছে কেউ বেঁচে নেই। তবে নিশ্চিত নই।’

পাকিস্তানের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম দ্য ডন বলছে, কয়েক জন বেঁচে যেতে পারেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এয়ারবাসটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগে দুই থেকে তিনবার অবতরণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

ফ্লাইটে ছিলেন দেশটির ২৪ নিউজের প্রোগ্রাম ডিরেক্টর আনসার নকভি এবং ব্যাংক অব পাঞ্জাবের প্রেসিডেন্ট জাফর মাসুদ।

জাফর মাসুদের পরিবারের পক্ষ থেকে গণমাধ্যম দ্য ডন ডনকে জানানো হয়েছে, তিনি বেঁচে আছেন।

স্থানীয় আরেকজন কর্মকর্তা বলেছেন, বিমান থেকে ১৩ জনের দেহ বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। আহত আরও ২৫-৩০ জনের অবস্থা গুরুতর। তারা মডেল কলোনির বাসিন্দা।

দুর্ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে দেখা গেছে, কালো ধোঁয়া বেরোচ্ছে । অ্যাম্বুলেন্স ও স্থানীয় প্রশাসন ছুটে যাচ্ছেন ঘটনাস্থলে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন আশপাশের অনেক বাড়িতেই আগুন লেগেছে।

আশঙ্কা করা হচ্ছে এ ঘটনায় বহু মানুষের প্রাণহানির সম্ভবনা রয়েছে।

পিকিউ/আওয়াজবিডি

ads