তিনবার করোনা রিপোর্ট তিন রকম, ক্ষেপলেন হাফিজ


হাফিজ

ইংল্যান্ড সফরে ডাক পাওয়া মোহাম্মদ হাফিজের করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে চলছে তামাসা। প্রথম দফায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের অধীনে পরীক্ষার ফলাফল এসেছিল পজিটিভ, এরপর নিজ উদ্যোগে আবারও করিয়েছিলেন পরীক্ষা। আর গন্ডগোলটা লেগেছে সেখান থেকেই। তখন তার করোনা নেগেটিভ এসেছিল। এরপর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড পুনরায় পরীক্ষা করায় পিসিবি, সেখানে আবারও হাফিজের ফলাফল পজিটিভ আসে।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) প্রথমে যখন অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারের করোনা পরীক্ষা করায়, তখন বাকি নয় সতীর্থের মতো রিপোর্ট পজিটিভ আসে হাফিজের। পিসিবির রিপোর্টে ভরসা করেননি হাফিজ। পরের দিনই নিজ উদ্যোগে টেস্ট করান তিনি। সে সময় হাফিজের করোনা রিপোর্টে আসে নেগেটিভ। এ নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। পিসিবির সঙ্গে রীতিমতো খারাপ সম্পর্ক তৈরি হয় এই অলরাউন্ডারের। পিসিবির রষানলে পড়তে হয় হাফিজকে। স্বাস্থ্য বিধি ভঙ্গ করলে হাফিজের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা আইনে মামলা করবে পিসিবি, এমনটাও শোনা যায়। কেননা দ্বিতীয়বার নেগেটিভ ধরা পড়ায় কোয়ারেটাইনে থাকতে অস্বীকৃতি জানান হাফিজ।

এ ব্যাপারে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এক সূত্রকে বরাত দিয়ে টাইমস অফ ইন্ডিয়া লিখেছে, গত শুক্রবার (২৬ জুন) শওকত খানম মেমোরিয়াল হাসপাতালে ক্রিকেটারদের আবারও করোনা পরীক্ষা করায় পিসিবি। এই পরীক্ষা সফলভাবে উতরে যেতে পারেননি হাফিজ।

সূত্রটি বলেছে, এটা বোর্ডের জন্য খুবই বাজে একটি অভিজ্ঞতা। সবাই খুব আগ্রহের সঙ্গে অপেক্ষা করছে যে, টেস্টের ফলাফল কি আসে জানার জন্য। কারণ এখানে করোনা আক্রান্ত ১০ ক্রিকেটার এবং একজন সাপোর্ট স্টাফ- সবারই টেস্ট করা হয়েছে।

শনিবার (২৭ জুন) ক্রিকেটারদের করোনা ফলাফল সংবাদমাধ্যমের সামনে ঘোষণা করার কথা রয়েছে পিসিবির। সুত্রটির মতে, শনিবার পিসিবি হাফিজের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের কোনো সিদ্ধান্তও জানাতে পারে।

পিসিবি জানায়, দ্বিতীয়বারের মতো টেস্ট করানোর পর যাদের ফলাফল পজিটিভ আসে, তারা ইংল্যান্ড সফর মিস করতে যাচ্ছে। তাদের কোয়ারেনটাইনে থাকার নির্দেশ দেবে পিসিবি।

ads