নাগরিক অধিকার হরণের অভিযোগে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা


ট্রাম্প

হোয়াইট হাউজের কাছে এক শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশের হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দেশটিতে নাগরিক অধিকার সংগঠনগুলো।

দ্য গার্ডিয়ান জানায়, গত সপ্তাহে পুলিশের হাতে আফ্রিকান-আমেরিকান জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে সোমবার হোয়াইট হাউজের কাছে লাফায়েতে স্কয়ারে বিক্ষোভে যোগ দিয়েছিল হাজারও মানুষ। বিক্ষোভ চলাকালীন ছবি তোলার জন্য ট্রাম্পকে চার্চে যেতে সুযোগ করে দিতে বিক্ষোভকারীদের লাফায়েতে স্কয়ার থেকে জোরপূর্বক সরিয়ে দেয় পুলিশ।

এই ঘটনায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারসহ কয়েকজন ফেডারেল কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন (এসিএলইউ ), ব্ল্যাক লিভস ম্যাটারসহ বেশ কয়েকটি নাগরিক অধিকার সংগঠন।

এসিএলইউ কলম্বিয়া জেলা অফিস জানায়, তাদের সাংবিধানিক অধিকার হরণ এবং এর জন্য বেআইনীভাবে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে ট্রাম্প এবং অন্যান্য মার্কিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। সোমবারের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভটি বাধা দিতে বিক্ষোভকারীদের ওপর ঘোড়া, প্রজেক্টাইলস এবং গ্যাস ব্যবহার করেছিল ইউএস পার্ক পুলিশ এবং ন্যাশনাল গার্ড। বিক্ষোভস্থল খালি করা করার কয়েক মিনিট পরই হোয়াইট হাউজ থেকে বেরিয়ে আসেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং হেঁটে তিনি সেন্ট জোসেপ চার্চে যান। সেখানে বাইবেল হাতে ছবি তুলেন তিনি।

এ দিকে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের বিচারের দাবিতে রাস্তায় নেমে ১০ হাজার মানুষ গ্রেফতার হয়েছেন। সবচেয়ে বেশি গ্রেফতার হয়েছে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে। গত ২৫ মে চার শ্বেতাঙ্গ পুলিশ কৃষ্ণাঙ্গ ফ্লয়েডের গলায় হাঁটুচেপে হত্যা করে। এই ঘটনার প্রতিবাদে বর্ণবাদ বিরোধী বিক্ষোভে ফেটে পড়ে দেশটির সাধারণ মানুষ। ওয়াশিংটন ডিসি, নিউইয়র্ক, লস অ্যাঞ্জেলসের মতো বড় শহর ছাড়াও অন্তত ৪০টি শহরে বিক্ষোভ হয়।

ads