যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত ৬২ হাজারেরও বেশি স্বাস্থ্যকর্মী


করোনা স্বাস্থ্যকর্মী

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন দেশটির হাজার হাজার স্বাস্থ্যকর্মী। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজেজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনসন (সিডিসি) এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত আনুমানিক ৬২ হাজার ৩৪৪ জন স্বাস্থ্যসেবা কর্মী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ২৯১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, বাস্তবে চিকিৎসকদের আক্রান্তের হার এ পরিসংখ্যানের চেয়েও বেশি। কেননা, সিডিসি-র হাতে এ সংক্রান্ত পর্যাপ্ত তথ্য উপাত্ত নেই।

কয়েক মাস ধরেই দেশটির চিকিৎসা কর্মীরা অভিযোগ করে আসছে যে, করোনা মোকাবিলায় তাদের পর্যাপ্ত সুরক্ষা সরঞ্জাম দেওয়া হচ্ছে না।

জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে ১৮ হাজার ৬১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদিন মৃত্যু হয়েছে ৬৯৩ জনের।

ওয়ার্ল্ড ওমিটারস-এর তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ লাখ ২৫ হাজার ২৭৫। মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৫৭২ জনের। চিকিৎসা গ্রহণের পর সুস্থ হয়ে উঠেছে চার লাখ ৭৯ হাজার ৯৬৯ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান থেকে ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। উৎপত্তিস্থল চীনে ৮৩ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেও সেখানে ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব কমে গেছে। তবে বিশ্বের অন্যান্য দেশে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়ছে। চীনের বাইরে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ১৩ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষাপটে গত ১১ মার্চ দুনিয়াজুড়ে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

উৎপত্তিস্থল চীনে মোট মৃতের সংখ্যা চার হাজার ৬৩৪। যদিও দেশটির বিরুদ্ধে প্রকৃত পরিস্থিতি গোপন করার অভিযোগ রয়েছে। উহানের একজন স্বেচ্ছাসেবী বলেন, ‘বুদ্ধি-বিবেচনাসম্পন্ন যে কোনও মানুষ এই সংখ্যা (সরকারি পরিসংখ্যান) নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করবেন।’

সূত্র: সিএনএন

এসএম/আওয়াজবিডি

ads