ভযঙ্কর করোনা : এক ভাইয়ের মৃত্যু আরেক ভাই হাসপাতালে


মৃত্যু

যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী টাঙ্গাইলবাসীদের সামাজিক সংগঠন টাঙ্গাইল জেলা সমিতি ইউএসএ’র সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক মোহাম্মদ খান রাজেস-এর বড় ভাই সাইফুর হায়দার খান আজাদ (৪৭) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নাল্লিাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)।

তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ৪ এপ্রিল শনিববার দিবাগত রাত ১টা ৩০ মিনিটে জ্যামাইকা হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে (৫ ও ৮ বছর), এক মেয়ে (১৬) সহ অরেক আত্নীয়-স্বজন রেখে যান। তিনি দীর্ঘ ৫ বছর ধরে নিউইয়র্কের রীচমন্ড হিলে সপরিবারে বসবাস করছিলেন।

মোহাম্মদ খান রাজেস জানান, অসুস্থ হয়ে তার ভাই সাইফুর হায়দার খান আজাদ গত ২৯ মার্চ রোববার হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে তার করোনাভাইরাস পজেটিভ সনাক্ত হয়। পরবর্তীতে তার চিকিৎসা চললেও শেষ পর্যন্ত আর রক্ষা হয়নি।

শনিবার দিবাগত রাত ১টা ৩০ মিনিটে জ্যামাইকা হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

মোহাম্মদ খান রাজেস আরো জানান, তারা ৫ ভাই ও এক বোন নিউইয়র্কে বসবাস করেন। তাদের অপর এক ভাই সফি হায়দার খান (৫৩) গত ৩০ মার্চ থেকে ম্যানহাটানের মাউন্টসিনাই হাসপাতালের আইসিউউতে আছেন। তিনি রিচমন্ডহীলে বসবাস করেন এবং গত ১০ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। তার স্ত্রী, এক ছেলে এক মেয়ে রয়েছে। মোহাম্মদ খান রাজেস তার অসুস্থ ভাইয়ের সুস্থতায় সবার দোয়া কামনা করেছেন।

উল্লেখ্য, মোহাম্মদ খান রাজেসরা টাঙ্গাইল শহরের ছয় আনীবাজারের স্থায়ী বাসিন্দা।

ads