প্রতারণা করে ৪শ’ মণ ধান আত্মসাৎ, আটক ৩


আত্মসাৎ

নেত্রকোনায় ধান ব্যাবসায়ীর চারশ’ মণ ধান আত্মসাৎ এর অভিযোগে ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৩মে) বিকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে  সমস্ত ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে আটককৃতদের সাংবাদিকদের সামনে হাজির করে।

আটককৃতরা হচ্ছে- শ্রীপুর থানার মো. রফিক, নেত্রকোনার বারহাট্টা থানার মো. শামীম ও সদর থানার রত্ন মিয়া।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার মোঃ আকবর আলী মুনসী জানান, গত ১৮ তারিখ বারহাট্টা উপজেলার ধান ব্যাবসায়ী মো. শফিকুল একটি ট্রাকে প্রায় ৪০০ মণ ধান তুলে দেন। টাঙ্গাইল জেলার মেসার্স গীতা অটো রাইস মিলে পৌঁছে দেয়ার কথা। কিন্তু ট্রাক ড্রাইভার হৃদয় মিয়ার সাথে যাওয়ার পথে ব্যাবসায়ীর একাধিক বার কথা হয়। পরদিন নিয়ম মতো ধান পৌঁছে যাওয়ার কথা থাকলেও সেখানে ধান না পৌঁছা এবং ট্রাক ড্রাইভারের ফোন বন্ধ থাকায় সন্দেহ সৃষ্টি হয়। পরে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে ট্রাক ড্রাইভারের নাম্বার দিয়ে নেত্রকোনা থানা পুলিশকে অবহিত করে ব্যাবসায়ী শফিকুল।

পুলিশ গত চারদিন অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে এবং চারশ মণ ধান বিক্রির প্রায় ২ লাখ ৭২ হাজার টাকার মধ্যে ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়, এটি পরিকল্পিত সিন্ডিকেট। এরা হয়তো বিভিন্ন স্থানে ব্যাবসায়ীদের ধান ট্রাকে করে নিয়ে আত্মসাৎ করে। তাই ব্যাবসায়ীরা যেনো জেলার বাইরে ধান বিক্রির সময় আইডি কার্ড বা ছবি তুলে রাখেন।

হুমায়ুন কবির/এসএম/আওয়াজবিডি

ads