চট্টগ্রামে বাবার পর করোনা আক্রান্ত হলেন ছেলেও


চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে প্রথম আক্রান্ত বৃদ্ধের ছেলেও একই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ফজলে রাব্বি মিয়া বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

রবিবার ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকসাস ডিজিজে (বিআইটিআইডি) নমুনা পরীক্ষায় এই ফলাফল পাওয়া গেছে।

বিআইটিআইডি সূত্র জানায়, আজ রোববার নুতন আরো ৩৫ জনের নমুনা পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। এরমধ্যে একজনের দেহে করোনাভাইরাসে উপস্থিতি ধরা পড়েছে। তিনি এর আগে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে প্রথম আক্রান্ত বৃদ্ধের ছেলে। তার বয়স ২৫ বছর।

সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘চট্টগ্রামে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর মেয়ের স্বামী ও মেয়ের শাশুড়ি ওমরা করে ফেরেন গত ১২ মার্চ। এর ঠিক ৯ দিনের মাথায় চট্টগ্রামে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীরে লক্ষণ দেখা দিতে শুরু করে। শুক্রবার (৩ এপ্রিল) বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) হাসপাতালে পরীক্ষায় ওই ব্যক্তির শরীরে করোনা ধরা পড়ে। এ ঘটনার পরপরই আমরা তার পরিবারের সদস্যদের করোনা পরীক্ষার উদ্যোগ নিই। বৃদ্ধের ওই বাড়িতে তিনজন থাকতেন। এর মধ্যে তার ছেলের শরীরে করোনা ধরা পড়ল। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল দুই জনে।

এর আগে শুক্রবার ও শনিবার দুই দিনে করোনা আক্রান্ত এই পরিবারের বাড়ি, আশপাশের আরও পাঁচটি বাড়ি, ওমরা ফেরত মেয়ের বাড়ি, তার শ্বশুর বাড়ি ও তাদের দুই নিকটাত্মীয়ের বাড়িসহ মোট ১৩ বাড়ি লকডাউন করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

এছাড়া করোনাভাইরাস ধরা পড়ার আগে ওই ব্যাক্তি নগরের বেসরকারি একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ায় ওই হাসপাতালের তিন চিকিৎসকসহ ২৩ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

এসএম/আওয়াজবিডি

ads