ক্যালিফোর্নিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৬


করোনাভাইরাসে

ক্যালিফোর্নিয়ায় এ পর্যন্ত ৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ক্যালিফোর্নিয়া গণস্বাস্থ্য বিভাগ থেকে এই তথ্য জানানো গেছে।

সেখানকার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, নতুন ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে, তবে সাধারণের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি খুব কম।

প্রতিরক্ষা অধিদপ্তর থেকে জানা যায়, করোনা ভাইরাসের কারণে বিদেশ থেকে আসা লোকজনকে নিরাপদ ও আলাদা ঘরে রাখার বিষয়ে তারা একমত হয়েছে। তাই ঘরের সংখ্যা এক হাজারে বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

সোলানো কাউন্টির ‘ট্র্যাভিস এয়ার ফোর্স বেস’ এবং সান দিয়েগো কাউন্টির ‘মেরিন কর্পস এয়ার স্টেশন মীরামার’ দুটি ক্যালিফোর্নিয়ার সাইট বেছে নেওয়া হয়েছে জানান, পেন্টাগনের একজন মুখপাত্র লেঃ কর্নেল ক্রিস মিচেল। অন্যগুলি হ’ল টেক্সাসের ল্যাকল্যান্ড এয়ার ফোর্স বেস এবং কলোরাডোর ১৬৮তম রেজিমেন্ট আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট।

এছাড়াও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের বিষয়ে যা জানা গেছে তা ‘আওয়াজবিডি’-এর পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

সান বেনিতো কাউন্টি
গত রবিবার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান যে, উপসাগর অঞ্চলে সর্বপ্রথম এক বিবাহিত দম্পতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হন এবং স্বামী সম্প্রতি উহান থেকে ফিরে এসেছিলেন। স্বামীর মাধ্যমে স্ত্রীর দেহে ভাইরাসটি সংক্রামিত হয়েছিল। তবে, ভদ্রলোক চীন থেকে ফিরে আসার পর থেকে এই দম্পতি তাদের বাড়ি ছেড়ে বাইরে যাননি। কাউন্টির জনস্বাস্থ্য বিভাগ জানান, তাদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়নি। তবে, তারা তাদের বাড়িতে আলাদাভাবে রয়েছেন।
“আমরা সান বেনিটো কাউন্টি বাসিন্দাদের রক্ষা করতে এবং এই ভাইরাসের বিস্তারকে সীমাবদ্ধ করতে পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে চলেছি” বলে জানান কাউন্টির স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ড. মার্টি ফেনস্টারশিব।

সান্তা ক্লারা কাউন্টি

সান্তা ক্লারা কাউন্টি গত সপ্তাহে, একজন ব্যক্তি চীন ভ্রমণের পরে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।
এখানে আক্রান্ত দ্বিতীয় ব্যক্তি হলেন একজন নারী। যিনি ২৩ শে জানুয়ারী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের সাথে দেখা করতে এসেছিলেন, কর্মকর্তারা বলেছিলেন। তিনি আসার পর থেকেই তিনি বাড়িতে রয়েছেন। উনাকে নিয়মিত পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে এবং কখনও হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার মতো অসুস্থ ছিল না।

পরিবারের সদস্যরাও বিচ্ছিন্ন রয়েছেন, যার অর্থ তারা মুদি জিনিস কেনার জন্য বাড়ি ছেড়ে বেরুতে পারছেন না। কাউন্টি স্বাস্থ্য বিভাগ, তাদের পরিবারের জন্য খাবার এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সরবরাহ করছে।

লস এঞ্জেলেস কাউন্টিলস এঞ্জেলেস কাউন্টিতে আক্রান্ত ব্যক্তি ছিলেন উহান থেকে ফিরে আসা যাত্রী। এলএ কাউন্টির জনস্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বারবারা ফেরার বলেন, “আক্রান্ত ব্যক্তি ল্যাক্স বিমানবন্দরে তাত্ক্ষণিক পরিচর্যার জন্য তাদেরকে হাজির করেন”।

অরেঞ্জ কাউন্টি

অরেঞ্জ কাউন্টিতে আক্রান্ত রোগী সুস্থ আছেন, বলে জানা গেছে। তিনিও একটি হাসপাতালে বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছেন। উভয়ই কাউন্টিতে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ রোগীদের সাথে নিবিড় যোগাযোগ রাখে এমন ব্যক্তির সাথে খোঁজখবর নিচ্ছেন।

ads