করোনা সন্দেহ শিশুদের অভিভাবক হয়ে সেবা দিচ্ছেন এই বাংলাদেশি তরুণ


বাংলাদেশি তরুণ

সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও রয়েছে কোভিড ১৯ করোনাভাইরাস আতঙ্কে। এমন পরিস্থিতিতে শিশু অধিকার ও শিশু গণমাধ্যম নিয়ে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আলোচিত আরিফ নিয়েছেন নতুন দায়িত্ব।

যেসকল শিশু আক্রান্ত সন্দেহ হচ্ছে তাদের সংশ্লিষ্ট জেলার উপর মহলে কথা বলে ভর্তি করানো, সুচিকিৎসা ও করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাতেও সহায়তা দিচ্ছেন এই বাংলাদেশী তরুন।

আওয়াজবিডিকে জাতিসংঘে বাংলাদেশ মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে করা সম্মেলনে শিশু মুখপাত্র হয়ে বক্তব্য রাখা আরিফ বলেন, চিকিৎসকরা ভয় পাচ্ছেন কল করলেই উল্টো অভিযোগ করে বলছেন পিপিই নাই, এমনকি জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট দেখলে অনেক পরিবারই ভয়ে হাসপাতাল অবধি নিতে চান না আর পাশাপাশি আইইডিসিআর কল করলে তাদের আচরণ অসন্তোষ জনক।

এই প্রতিবেদককে দক্ষিন এশিয়া অঞ্চলের শিশু গণমাধ্যম এই প্রধান বলেন, টেস্ট করাতে আগ্রহী দেখা যায় না এই প্রতিষ্ঠানটিকে। যখন উপর লেভেল থেকে বলানো হচ্ছে তারা তা থেকে কিছু করছেন। এতে শিশু সহ ঝুঁকি সবারই বাড়ছে বলে মনে করেন ইউনিসেফ ও সেভ দ্যা চিলড্রেনস প্রশংসা পাওয়া এই বাংলাদেশি তরুন। আওয়াজবিডিকে আরিফ বলেন, ০ থেকে ১৪ বছর বয়সী কোনও বাংলাদেশি শিশু যদি আক্রান্ত সন্দেহ মনে হয় তার জন্য নিকটস্থ হাসপাতাল, ক্লিনিকে দেখাতে পাশাপাশি সহায়তা পেতে ফেসবুক ইনবক্সে অথবা হোয়াটসঅ্যাপ 01841771454 নাম, বয়স, জেলা, থানা, হাসপাতালের নাম লিখে পাঠালে অবশ্য ই আমার পক্ষ থেকে সেবা দিবো।

দেশী ও বিদেশী পুরস্কার পাওয়া এই বাংলাদেশি তরুন বলেন, একজন শিশুর জীবন যেন করোনাভাইরাস বিপন্ন না হয় এরজন্য একটি টিম গঠন করা হবে দ্রুতই।

রেদওয়ানুল/আওয়াজবিডি

ads