রাতভর সেক্সপার্টি শেষে সকালে বললেন ‘সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন’

কাইল ওয়াকার

রাতভর কাটালেন কলগার্লদের সাথে। বন্ধুকে নিয়ে করলেন ফূর্তি। কিন্তু সকালেই ভক্তদের উদ্দেশে বললেন, ‘নিরাপদ থাকতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।’

ম্যানচেস্টার সিটির ইংলিশ ডিফেন্ডার কাইল ওয়াকারের এমন দ্বিমুখী ব্যবহারে বিরক্ত ভক্তরা। এ ঘটনার পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন ইংলিশ এই তারকা।

রিটিশ ট্যাবলয়েড দ্য সান কলগার্লদের একজনের পরিচয় প্রকাশ করেছে। ২১ বছর বয়সী লুসি ম্যাকনামারা এর সাথে ছিলেন ব্রাজিলের আরেক কলগার্ল। গত ২৩ মার্চ থেকে তিন সপ্তাহের লকডাউন চলছে ব্রিটেনে। দ্য সান জানায়, নিজের বিলাসবহুল এপার্টমেন্টে দুই কলগার্লকে ডাকেন ওয়াকার। দুজন একই ট্যাক্সি ক্যাবে করে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১০টায় পৌঁছেন কাইল ওয়াকারের চেশায়ারের বাসায়। এরপর ওয়াকারের এক বন্ধু কলগার্লদের নিয়ে যায় ইংলিশ ফুটবলারের এপার্টমেন্টে।

দ্য সানকে লুসি বলেছে, ‘আমি ম্যানচেস্টারের এক এজেন্সির হয়ে কাজ করি। বসের কাছ থেকে একটা মেসেজ পাই যেখানে তিনি লিখেন, ‘একজন হাইপ্রোফাইল ক্লায়েন্ট ক্ল্যাসি কাউকে খুঁজছেন।’ ক্যাবের ড্রাইভার ঠিকানানুযায়ী এপার্টমেন্টের গেটে আমাকে নামিয়ে দেয়। তার এক বন্ধু আমার সঙ্গে সাক্ষাত করেন। গাড়িতে আরেকটি মেয়ে ছিল। সে না বলার আগ পর্যন্ত আমি জানতাম না যে কাইল ফুটবল তারকা। কারণ নিজের পরিচয় গোপন রেখেছিল কাইল। কিন্তু আমি তার কয়েকটি ছবি তুলে রেখেছিলাম।’

লুসির তোলা একটি ছবিতে দেখা গেছে, টাকা গুনছেন কাইল। তিনি ও তার বন্ধু তিন ঘণ্টা ফূর্তির বিনিময়ে ২ হাজার ২০০ পাউন্ড দিয়েছেন ওই দুই কলগার্লকে। পাওনা হাতে পাওয়ার পর রাত ২টার দিকে বেরিয়ে গিয়েছিল তারা।

সেদিনই এক টুইট বার্তায় কাইল ওয়াকার লিখেন, ‘প্লিজ সবাই ঘরে থাকুন। এই কঠিন মুহূর্তে ভালোবাসার মানুষটির সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন কিন্তু তাদের সঙ্গে সাক্ষাত করতে যাবেন না।’ আর পরদিন বুধবার এক ইন্টারভিউয়ে ওয়াকার বলেন, ‘ঘরে থাকুন। নিয়মিত হাত ধৌত করুন। সেসব বিধিনিষেধ রয়েছে সেগুলো মেনে চলুন।’

ওয়াকারের এমন আচরণে অবাক কল গার্ল লুসি, ‘রাতে সে অচেনা কলগার্লদের ঘরে ডাকলো সেক্সপার্টির জন্য।

এসএম/আওয়াজবিডি


অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://awaazbd.net/author/awaazbdonlinenews

অনলাইন ডেস্ক

mujib_100
ads
আমাদের ফেসবুক পেজ
সংবাদ আর্কাইভ